Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

ক)  কৃষকের ফসল উৎপাদনে উন্নত জাত,মৃত্তিকা/সার/পানি ব্যবস্থাপনা/বিশেষ পরিচর্য্যা এবং ফলবাগন স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক তথ্য জানতে সংশ্লিষ্ট উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা/অতিরিক্ত কৃষি কর্মকর্তা/কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা/ সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা/উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা/উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা) এর মাধ্যমে শস্য উৎপাদন বিশেষজ্ঞ(সিপিএস) এর সহিত যোগাযোগ করতে হবে।

খ)  কৃষকের ফসলী মাঠের বা শস্য ভান্ডারের পোকামাকড়/রোগবালাই জনিত সমস্যার সমাধান ব্লক পর্যায়ে কর্মরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা দিতে অসমর্থ হলে তিনি বা উপজেলার দাযিবতপ্রাপ্ত যে কোন কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সজীব নমুনাসহ উদ্ভিদ সংরক্ষণ বিশেষজ্ঞ(পিপিএস) এর সহিত যোগাযোগ করতে হবে।

গ)  কোন আগ্রহী ব্যবসায়ী বালাইনাশক বিক্রয়ের পাইকারী/খুচরা লাইসেন্স পেতে বা প্রাপ্ত লাইসেন্স নবায়ন করতে উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা (এসএপিপিও) এবং সংশ্লিষ্ট কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা/ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এর মাধ্যমে উপ-পরিচালক কৃষি সম্প্রসারণ খাগড়াছড়ি বরাবরে নির্ধারিত ছকপত্রে আবেদন করতে হবে। আবেদন যাচাই-বাছাই ও পর্যবেক্ষণ পূর্বক উদ্ভিদ সংরক্ষণ বিশেষজ্ঞ(পিপিএস) কর্তৃক লাইসেন্স ইস্যু বা নবায়ন করা হয়।

ঘ)  উপজেলা পর্যায়ে কৃষি প্রযুক্তিগত বিষয়ভিত্তিক কৃষক/কৃষাণী/ ফলবাগানীদের প্রশিক্ষণ পেতে সংশ্লিষ্ট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এর মাধ্যমে (বিনা খরচে / প্রকল্পভিত্তিক/ন্যূনতম খরচে/নির্ধারিত ভাতার বিনিময়ে জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তার সহিত যোগাযোগ করতে হবে।

ঙ)   উপজেলা ও জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ তাদের প্রাপ্য আর্থিক ও প্রশাসনিক সুবিধা পেতে বিধি মোতাবেক নির্ধারিত ছকপত্রে বা সাদা কাগজে লিখিত আবেদনের প্রেক্ষিতে আবেদন যাচাই-বাছাই বা পর্যবেক্ষণ পূর্বক উপ-পরিচালক কৃষি সম্প্রসারণ প্রাপ্য সুবিধাদি প্রদানের নির্দেশনা জারী করেন।